Published: June 12, 2020

সৈয়দপুরে সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া কয়েকটি দুর্ঘটনা


জাহিদুল হাসান জাহিদ-সারা দেশের ন্যায় নীলফামারীর সৈয়দপুরে করোনার কারণে দীর্ঘদিন কাজকর্ম বন্ধ থাকার পর কর্মজীবী খেটে খাওয়া মানুষ সরকারি ঘোষণার পর বিভিন্ন কাজকর্মে ফিরছে।পুলিশ প্রশাসন করোনভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার প্রতিরোধসহ জনগণকে সচেতন করতে বিভিন্ন কাজে যখন ব্যস্ত। এই ফাঁকে কিছু অপরাধী চক্র শহর ও শহরের আশপাশে ঈদের পর থেকে একেরপর এক দূর্ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে।যা প্রশাসন ও মিডিয়ার চোখে পরে আসছে।

এমনই কিছু ঘটনা সৈয়দপুরে সাম্প্রতিক ঘটেছে যা ভুক্তভোগী,প্রশাসন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে জানা যায়।ওইসব দুর্ঘটনা কয়েকটি পুলিশ প্রশাসনের কাছে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছে।আবার কিছু ঘটনা পুলিশ প্রশাসনের কাছে রয়েছে অজানা।

সৈয়দপুরে সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া কয়েকটি ঘটনা- এই ঈদের চতুর্থ দিন ৩০মে বিকেলে দুই ছিনতাইকারী যাত্রীবেশে অটোরিক্সায় উঠে অটো চালক কে অবচেতন করে তার অটোরিক্সা ছিনতাই করে নিয়ে যায়।সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশন এলাকার আশপাশে এই ঘটনাটি ঘটে।পরে অন্য পথচারীরা তাকে সৈয়দপুর১০০শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যায়।তার নাম ওবায়দুর ইসলাম পিতার নাম গফুর উদ্দিন।সে নিচু কলোনীর বাসিন্দা।তার পিতার বাড়ি ঢেলাপির হাটের পাশে।এই ঘটনা ভুক্তভোগীর বড় ভাই পুলিশকে মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছে জানান।

ঈদের পঞ্চম দিন ৩১মে সৈয়দপুর হাতিখানা ক্যাম্পের আলমগীর হোসেন কে ওই এলাকার বখাটে বাবুয়া ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে।সুত্রে জানা যায়,জুয়া খেলায় নিষেধ করায় আলমগীর হোসেন কে বখাটে বাবুয়া ও তার সহপাঠীরা মারে এবং পেটে চাকু মারে।পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।এই ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে এবং পুলিশ দুইজন আসামীকে আটক করেছে।

আবার এই জুনের ৮তারিখে মাসুম বিল্লাল নামে এক কিশোরীকে অবচেতন করে তার ব্যাটারী চালিত ভ্যান ছিনতাই করে নিয়ে যায় দুই ছিনতাইকারী।পরে পুলিশ ওই অবচেতন কিশোরীকে উদ্ধার করে সৈয়দপুর১০০শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে।জানাযায় ওই কিশোরের বাড়ি তাঁরাগঞ্জ।

এদিকে বুধবার১০জুন সৈয়দপুর পাইলট বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ সংলগ্ন এলাকায় এসকেএস এর স্বেচ্ছাসেবক করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সাবান মাস্ক বিতরণকালে ওই এলাকার রেজা ও আরো কয়েকজন মিলে স্বেচ্ছাসেবীদের মারপিট করে সাবান মাস্ক লুট করে নিয়ে যায়।এব্যাপারে সৈয়দপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী স্বেচ্ছাসেবক।

এসব অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িতদের কঠিন হাতে দমনের জন্য পুলিশ প্রশাসনকে ভুক্তভোগীরা অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *