Published: September 21, 2019

সৈয়দপুরে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে মানববন্ধন


এম,জেড,হাসান-রেলওয়ের ভূমিতে বসবাসকারীদের উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ সহ বসবাসকারীদের মাঝে বরাদ্দ বা বন্দোবস্ত দেয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করে রেলওয়ের ভূমিতে বসবাসকারীদের সংগঠন অধিকার’এর নীলফামারীর সৈয়দপুরে সর্বকালের সর্ব দীর্ঘ মানববন্ধন হয়েছে।


শনিবার(২১সেপ্টেম্বর)বিকাল ৪টা হতে ৫টা পর্যন্ত সৈয়দপুর তুলশিরাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ হতে আরম্ভ করে সৈয়দপুর রিপোর্টার্স ইউনিটি হয়ে বিমানবন্দর সড়ক নিচু কলোনি সোনালী ব্যাংক পর্যন্ত এবং বঙ্গবন্ধু চত্বর হয়ে পাইলট বালক উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত।আবার প্লাজা সুপার মার্কেট থেকে ট্রাফিক পুলিশ বক্স পর্যন্ত চার কিলোমিটার সড়কের দুই পাশে রেলওয়ের জমিতে বসবাসকারী হাজার হাজার মানুষ রেলওয়ের জমি থেকে উচ্ছেদ নয়’বসবাসকারীদের মাঝে বরাদ্দ বা বদোবস্ত চাই ব্যানার,ফেস্টুন লেখা নিয়ে ঘন্টা ব্যাপী সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে এই মানববন্ধন করা হয়।
মানববন্ধনে অধিকার’র নেতারা মানবতার মা মাননীয়া প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন,রেলওয়ে ভূ-সম্পত্তি পাকশী কর্তৃক সৈয়দপুরে রেলওয়ের জমিতে বসবাসকারীদের আগামী ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার তারিখ নির্ধারণ রয়েছে।উল্লেখিত তারিখে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা যদি করা হয়, তা হলে প্রায় বিশ হাজার পরিবার ও কয়েক হাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্গে ফেলা হতে পারে।সৈয়দপুরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হলে প্রায় আশি হাজার মানুষ হবে গৃহহারা আর কয়েক হাজার মানুষ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হারিয়ে বেকারত্ব হয়ে পরবে।মানুষের বসতবাড়ি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ না করে বসবাসকাররীদের মাঝে বরাদ্দ বা বন্দোবস্ত দিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।এছাড়াও মানববন্ধনে বলা হয়,উচ্ছেদ অভিযান যদি অব্যাহত থাকে তা হলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।


মানববন্ধনে চারটি পয়েন্টে বক্তব্য রাখেন, অধিকার এর সভাপতি ও সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.মোখছেদুল মোমিন,অধিকার’উপদেষ্টা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র মো.আখতার হোসেন বাদল,অধিকার সাধারণ সম্পাদক হাজী তসলিম,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জোবায়দুর রহমান শাহীন সহ অধিকার’এর নেতৃবৃন্দ।
এসময় ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে সৈয়দপুরের ১৫ ওয়ার্ডের রেলওয়ের জমিতে বসবাসকারী জনগণ,সাংবাদিক সংগঠন সৈয়দপুর রিপোর্টার ইউনিটি,ব্যবসায়ী, বিদ্যালয়ের শিক্ষক,শিক্ষার্থী,কুলি,শ্রমিক সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *