Published: November 17, 2019

সৈয়দপুরে প্যারামেডিক্যাল ডাক্তারদের দক্ষতা সনদ বিতরণ ও মতবিনিময় সভা

মো.জাহিদুল হাসান জাহিদ-নীলফামারীর সৈয়দপুরে প্যারামেডিক্যাল ডাক্তারদের কর্মদক্ষতার বিশেষ সনদপত্র বিতরণ ও মতবিনিময় সভা হয়েছে।
রবিবার(১৭নভেম্বর)সকাল ১১টায় সৈয়দপুর প্লাজা সুপার মার্কেটের তৃতীয় তলায় বাংলাদেশ প্যারামেডিক্যাল ডক্টরস এসোসিয়েশন(বিপিডিএ)সৈয়দপুর শাখার আয়োজনে মতবিনিময় সভা ও সনদ বিতরণ হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিপিডিএ কেন্দ্রীয় কমিটির সচিব ডাঃ মো.রফিকুল ইসলাম তুহিন।বিশেষ অতিথি ছিলেন, রংপুর বিপিডিএ আহবায়ক ডাঃ মো.বেলাল আহমেদ, রংপুর বিভাগীয় সদস্য ডাঃ মো.গোলাম সরোয়ার,ডাঃ মিজানুর রহমান মিজান, ডাঃ রুহুল আমিন সরকার।
সৈয়দপুর বিপিডিএ শাখার সহ সভাপতি ডাঃ আব্দুর রহমান এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভা হয়।মতবিনিময় সভাটি পরিচালনা করেন,ডাঃ সাজিদুর রহমান লোহানী।
এসময় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন,বাংলাদেশ সরকার উন্নত দেশ গঠনের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে প্রায় অনেকাংশে সফল।কিন্তু পিছনে পড়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীর যে সকল প্যারামেডিক্স চিকিৎসা বিএমডিসি রেজিস্টার ভুক্ত নয় তাদেরকে নিয়ে বিপিডিএ কাজ করে উন্নত চিকিৎসা প্রদানের জন্য এ সকল চিকিৎসক আমাদের দেশে বিভিন্ন বেসরকারি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হতে প্রশিক্ষণ নিয়েছে তার তথ্য সংগ্রহ করে সরকারিভাবে এস এম এফ হতে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত বিপিডিএ এর আওতায় থাকবে।এসোসিয়েশনের দক্ষ জেলা শহরে সংগঠনের কমিটির পরিচালনায় প্রশিক্ষণ প্রদান করে মেধা ভিত্তিক সনদ এবং মেডিকেল ইথিক্স অনুযায়ী চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে পারবে।তিনি আরও বলেন, ভুয়া চিকিৎসক রোধে বিএমডিসি একটি ওয়েবসাইট চালু করেছে।ওই সাইটে রেজিস্ট্রেশন নং দিয়ে সার্চ দিলে যারা রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত চিকিৎসকের ছবি ও তথ্য চলে আসবে।ভুয়া এমবিবিএস ও বিডিএস সেজে প্রাকটিস করতে না পারে এজন্য বিপিডিএ ওয়েবসাইটে একজন প্যারামেডিক্স চিকিৎসক সহজেই সনাক্ত করা যাবে। সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া হাসপাতাল বিষয়েও তিনি কথা বলেন। যাহাতে হাসপাতালটি সকলের সহযোগিতা নিয়ে আবার চলতে পারে এজন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে কথা বলবেন জানান।
অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, হাফেজ বাপ্পি। আমন্ত্রিত অতিথিদের ফুলেল তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।ওইসময় স্হানীয় প্যারামেডিক্যাল ডাক্তার বাবলু জামান ও জবা বক্তব্য দেন।পরে প্রধান অতিথি এগারো জন ডাক্তারের হাতে দক্ষতা সনদ বিতরণ করেন।
এসময় সৈয়দপুর উপজেলার একশতজন নারী পুরুষ প্যারামেডিক্যাল ডাক্তার উপস্থিত ছিলেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *