খোলা ড্রেনে মল ত্যাগ,পৌর কর্তৃপক্ষ নির্বিকার

নর্থবেঙ্গল নিউজ।। সৈয়দপুরের প্রতিটি ওয়ার্ড যখন আধুনিক হচ্ছে ঠিক তখন নিচু কলোনীর কয়েকজন বাসিন্দা সেই পথে অগ্রসর না হয়ে নিজেদের অর্থ বাঁচানোর স্বার্থে পৌরসভার বিধি নিষেধ কে তোয়াক্কা না করে গায়ের জোরে আধুনিক স্যানিটারী না বানিয়ে তাদের বাড়ির পায়খানা গুলোতে পিভিসি পাইপ লাগিয়ে পাইপের সংযোগ খোলা বড় ড্রেনে দিয়ে মল ফেলার অভিযোগ পাওয়া যায়।

এক অনুসন্ধানে দেখাগেছে,সৈয়দপুর শহরের বেশীর ভাগ জমি রেলের হওয়ায়,পৌর আইন না মেনে যে যার মত করে ড্রেনের পাশে বাড়ি ঘর তৈরি করছে।এমন ভাবে বাড়ি ঘর করেছে যে ড্রেন গুলোতে পরিচ্ছন্ন কর্মী সঠিক সময় পরিস্কার করতে পারে না।

আবার যে সব ব্যক্তি ড্রেনের পাশে বাড়ি ঘর তৈরি করেছে বা আছে, তাহারা বাড়িতে সেপ্টিক ট্যাংকি না বসিয়ে স্যানিটারী পায়খানার পাইপ দিয়ে সরাসরি ড্রেনে মল ত্যাগ করছে।

খোলা ড্রেনে মানুষের মল থাকায় মাছি মশার উপদ্রব বেড়েছে প্রচুর।সেই  মলের মাছি মশা মানুষের খাদ্যের উপর পড়ছে ৷ এতে করে শিশু আক্রান্ত হচ্ছে ডায়রিয়ায়। এছাড়া পরিবেশ হচ্ছে দুষিত ৷

সৈয়দপুরে খোলা ড্রেনে পাইপের মাধ্যমে মল ত্যাগ করা পায়খানা নিচু কলোনি এলাকায় সব থেকে বেশি দেখা যায় ৷

এলাকাবাসি জানান,পৌর কর্তৃপক্ষ একবার মাইকিং করে পায়খানার পাইপ খুলে ফেলতে বলেছে,তবে তাতে কোন কাজ হয়নি। পৌর কর্তৃপক্ষ এই ব্যাপারে সরাসরি ব্যবস্থা না নেওয়ায় দেদারছে ব্যবহিত হচ্ছে খোলা ড্রেনে মল ফেলা।

এব্যাপারে ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ বলেন,শীঘ্রই পদক্ষেপ নেওয়া হবে জানান।